সাভার প্রতিনিধি: সাভার উপজেলার বিরুলিয়ায় পূর্ব শত্রুতার জেরে সাবেক চেয়ারম্যানের বাড়িতে হামলা হয় বলে জানা যায়। এই ঘটনায় বাড়িতে থাকা তিনজন আহত সহ প্রায় ২ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে।
উক্ত ঘটনায় শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) সাবেক এই চেয়ারম্যান বাদী হয়ে সাভার মডেল থানায় মামলা (মামলা নং-২৪) দায়ের করেন। তিনি বিরুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান সুজন।
এর আগে,গত ৭ই ফেব্রুয়ারি বুধবার বিকেলে উপজেলার বিরুলিয়া ইউনিয়নের কাকাবো এলাকায় সাবেক চেয়ারম্যানের নিজ বাড়িতে এই হামলার ঘটনা ঘটে।
হামলার ঘটনায় আহতদের এলাকাবাসী উদ্ধার করে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য নেওয়া হয়। এ হামলায় আহতরা হলেন- মো.আশরাফ (৪০) মো.রনি (২৮) সাবেক চেয়ারম্যানের বড় ছেলে রাইসুল ইসলাম ইনজিয়াল (১৮)। এর আগে সাইদুর রহমান সুজনের মুঠোফোনে একাধিকবার মামুন হোসেন তাকে প্রাণনাশের হুমকি প্রদান করেন। তার পরপরই মামুন হোসেন সঙ্গবদ্ধভাবে ৭/৮ জনের দলবল লাঠিসোটা,ও ভারি দেশীও অস্ত্র সস্ত্র নিয়ে বাড়ির প্রধান ফটক ভেঙ্গে বাড়িতে ঢুকে এলোপাতাড়ি কালিগালাজ এবং সাবেক এই চেয়ারম্যান কে খুঁজতে থাকেন ও ভাঙচুর চালায় বলে জানা যায়। এই হামলায় ঘটনায় সাভার মডেল থানায় একটি মামলা হয়েছে, এ মামলায় অভিযুক্তরা হলেন- আসলাম হোসেনের ছেলে মো.মামুন হাসান (৩৮) মৃত আক্কাছ আলীর ছেলে ফরিদুল ইসলাম (৪০) এখলাছ মিয়ার ছেলে মোস্তফা মিয়া, মৃত আলী মিয়ার ছেলে ফরিদুল ইসলাম (৪০)সহ অজ্ঞাত ৪/৫জন।
এ হামলায় সাবেক চেয়ারম্যানের বড় ছেলে আহত রাইসুল ইসলাম ইনজিয়াল বলেন, ঘটনার দিন ৮/১০জন লোক দেশিও অস্ত্রসহ আমাদের বাড়িতে হামলা চালিয়ে বাড়ির প্রধান গেইট ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে। এসময় তারা অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও আমাদের লোকজনদের মারধর করে।
বিরুলিয়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান সুজন বলেন, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে চিহ্নিত ভূমিদস্যু মামুন হোসেন ও তার লোকজন আমার বাড়িতে হামলা করে। এসময় আমার বড় ছেলে রাইসুল ইসলাম ইনজিয়ালসহ তিনজন আহত হয়েছে। এছাড়া ভাঙচুর করে কমপক্ষে ২ লক্ষ টাকার ক্ষতিসাধন করে মামুন সহ হামলাকারী সন্ত্রাসীরা।
এবিষয়ে মামলার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাভার মডেল থানার ও বিরুলিয়া পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (এসআই) দিদারুল ইসলাম বলেন, সাবেক চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান সুজনের বাড়িতে হামলার ঘটনায় সাইদুর রহমান সুজন বাদী হয়ে সাভার মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। আসামিদের দ্রুত গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছেন বলে তিনি জানান।

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ