সাতক্ষীরার তালা উপজেলার ১২নং খলিলনগর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের হাজরাকাটী টু কাটবুনিয়ার
রাস্তার পাশের সরকারি গাছ কাটার অভিযোগ পাওয়া গেছে । সরেজমিনে যেয়ে দেখা যায়, সরকারি রাস্তার একটি শিশু গাছ কেটে নিচ্ছে তালা উপজেলা হাজরাকাটী গ্রামের জাহাঙ্গীর আলম পল্টু শেখ (৪২) পিতা মৃত মোহাম্মদ শেখ, ওই গাছটি কাটতে ৩ থেকে ৪ জন শ্রমিক নিয়ে শুক্রবার ১লা মার্চ সকাল থেকেই গাছটি কেটে তার নিজের বাড়িতে নিয়ে যান।
স্থানীয়রা জানায়, অনেক বছর আগে এই রাস্তা দিয়ে সরকারিভাবে অনেকগুলো গাছ রোপন করা হয়।
সেই গাছের নিচে পথচারী ও মাঠের কৃষকেরা বিশ্রাম নিয়ে থাকেন। এ বিষয়ে আরো জানান এর আগেও তিনি ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে দুটো গাছ কেটে নিয়েছেন। এইভাবে যদি গাছ কাটতে থাকে তাহলে রাস্তার ধারে আর কোন গাছ খুঁজে পাওয়া যাবে না।
এ বিষয়ে গাছ কাটা অভিযুক্ত জাহাঙ্গীর আলম পল্টুর কাছে জানতে চাইলে তিনি গাছ কাটার বিষয়টি সত্যতা স্বীকার করেন এবং বলেন আমাদের সাবেক চেয়ারম্যান সরদার ঈমান আলী আমাকে গাছ কাটতে বলেছে। তাই আমি আমার জমির পাশের গাছ কেটে নিচ্ছি। কারো যদি কিছু করার ক্ষমতা থাকে সে করবে।
এ বিষয়ে ১নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোহাম্মদ সেলিম হোসেন জানান, গাছ কাটার বিষয়টি আমি জানতে পারি এবং সঙ্গে সঙ্গে ঘটনা স্থলে উপস্থিত হয়ে দেখি জাহাঙ্গীর আলম পল্টু তিন চার জন শ্রমিক নিয়ে রাস্তার ধারে গাছ কেটে নিচ্ছে। গাছ কাটতে তাকে নিষেধ করলে তিনি আমার কথা না শুনে উল্টা আমাকে হুমকি ধামকি দেন।
তালা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করলে ফোনটি রিসিভ করেন
আরাফাত হোসেন (সহকারী ভূমি কমিশনার) তিনি বলেন, স্যারের ফোনটি আমার কাছে হাজরাকাটি সরকারি গাছ কাটার বিষয়টি আমি শুনেছি এবং ঘটনা স্থলে লোক পাঠিয়েছি। বিষয়টি নিয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ