মোঃ কামাল হোসেন, বিশেষ প্রতিনিধি:
যশোর-৪ অভয়নগর-বাঘারপাড়া আসনে সকল জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে নৌকার মাঝি অভয়নগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব এনামুল হক বাবুল আইনী লড়াইয়ে প্রার্থীতা ফিরে পেলেন। ফলে, বাঘারপাড়া-অভয়নগরের জনগণ আনন্দ উল্লাস উদযাপন করছেন। জানা গেছে, যশোর ৪ সংসদ নির্বাচনী আসনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী অভয়নগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব এনামুল হক বাবুলকে মনোনয়ন দেন। যে কারনে এই দুই উপজেলা জুড়ে মানুষের মাঝে আনন্দ উল্লাস দেখা যায়। প্রার্থীতা যাচাই বাছাইয়ে গত ৩ ডিসেম্বর নৌকার প্রার্থী বাবুলের প্রার্থীতা বৈধ ঘোষণা করেন নির্বাচন কমিশন। ওই প্রার্থীতা বৈধতার বিরুদ্ধে ঋন খেলাপীর অভিযোগ এনে প্রধান নির্বাচন কমিশনে দুইজন স্বতন্ত্র প্রার্থী আপিল দায়ের করেন। যার কারণে গত ১৩ ডিসেম্বর ওই আপিলের শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। আপিল শুনানিতে নৌকার মাঝি এনামুল হক বাবুলের প্রার্থীতা অবৈধ ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশন। যে কারনে নৌকার মাঝি প্রার্থীতা হারানোর খবরে অভয়নগর-বাঘারপাড়াসহ বসুন্দিয়ার সাধারণ মানুষের মাঝে দুঃখ-কষ্টের ছাপ লেগে যায়। প্রার্থীতা ফিরে পেতে নৌকার মাঝি এনামুল হক বাবুল বিজ্ঞ হাইকোর্টে আপিল করেন। আপিল শুনানি ১৭ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হয় যার রায়ে বিজ্ঞ আদালত ১৮ ডিসেম্বর নৌকার মাঝি এনামুল হক বাবুলের প্রার্থীতা বাতিল ঘোষণা করলে অভয়নগর -বাঘারপাড়ার মানুষের মাঝে উদ্বেগ উৎকন্ঠার সৃষ্টি হয়। পরবর্তীতে হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে চেম্বার আদালতে প্রার্থীতা ফিরে পেতে বাবুল ফারাজী আপিল করে। ফলে, বিজ্ঞ চেম্বার আদালত ১৯ ডিসেম্বর আলহাজ্ব এনামুলের প্রার্থীতা বহাল রেখে রায় ঘোষণা করেন। ওই রায় ঘোষণার পরে গোটা যশোর ৪ আসনের জনগণের মাঝে আনন্দ উল্লাস নজর কাড়ার মত পরিলক্ষিত হয়। উল্লেখ‍্য, ঘটনা প্রবাহে মানুষের মধ্যে এই কয়টা দিন একটাই আলোচনা সমালোচনার বিষয় ছিলো এখন কি হবে? অবশেষে সকল জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে নৌকার মাঝি নৌকা নিয়ে ঘরে ফেরায় মানুষের আনন্দ উল্লাসের জোয়ার বইছে। পরিশেষে জয় হোক মানুষের, জয় হোক নৌকা প্রার্থী এনামুল হক বাবুলের, এই প্রত্যাশা অভয়নগর-বাঘারপাড়ার মানুষের।

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ