( বিশেষ প্রতিনিধিঃময়মনসিংহের জেলা পরিষদ নির্বাচনে একজন চেয়ারম্যান, ১২ জন সদস্য এবং ৪ জন সংরক্ষিত মহিলা সদস্য কে নিয়ে ১৭ জনের জেলা পরিষদের ২য় বারে মত ১৩টি (ময়মনসিংহ সদর, ত্রিশাল, ভালুকা, ফুলবাড়িয়া, মুক্তাগাছা, গফরগাঁও, গৌরীপুর, ঈশ্বরগঞ্জ, নান্দাইল, তারাকান্দা, ফুলপুর, হালুয়াঘাটও ধোবাউড়া) উপজেলার পরিষদের নির্বাচন গত ১৭ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হয়েছে। ময়মনসিংহের জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, সদস্য, মহিলা সদস্য পদে ১১নং ওয়ার্ড নান্দাইল উপজেলা ও পৌর সভার মোট ভোটার সংখ্যা ১৮৫ টি। যার মধ্যে পুরুষ ভোটার ১৪১ জন এবং মহিলা ভোটার ৪৪ জন।
নির্বাচনে ১৩ টি উপজেলায় মধ্যে চেয়ারম্যান পদে অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান ১১ নং নান্দাইল উপজেলার (আনারস মার্কা) ৯৭ ভোট পেয়ে এগিয়ে আছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোঃ আমিনুল ইসলাম আমিন (চসমা মার্কা) পেয়েছেন ৫০ ভোট। নূরুল হক ঘোড়া মার্খা ৩৪ ভোট ও হামিদুর ইসলাম মোটর সাইকেল মার্খায় ১ ভোট পেয়েছেন।
ময়মনসিংহ জেলা পরিষদ নির্বাচনে
সদস্য পদের ১১নং নান্দাইল উপজেলায় সদস্য পদে ২য় বারের মতো মোঃ আবু বক্কর সিদ্দিক বাহার (তালা মার্কা) ৯১ ভোট পেয়ে বে-সরকারি ভাবে বিজয়ী হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোহাম্মদ খায়ছারুল আলম ফকির (টিউবওয়েল মার্কা) ৫৭ ভোট পেয়েছেন। আবু নাঈম ভূইয়া ফারুক – ঘুড়ি মার্কায় ৩৪ ভোট পেয়েছেন।
ময়মনসিংহ জেলা পরিষদ নির্বাচনে ঈশ্বরগঞ্জ, নান্দাইল, ত্রিশাল উপজেলা নিয়ে গঠিত সংরক্ষিত মহিলা ৪নং আসন ১১নং ওয়ার্ড নান্দাইল উপজেলার মহিলা সদস্য প্রার্থী মোছাঃ শিরিন সোলাইমান (মাইক মার্কা) ৭৩ ভোট পেয়ে এগিয়েছে আছে, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোছাঃ সালমা বেগম (দোয়াত কলম মার্কা) পেয়েছেন ৫৫ ভোট। নাজমা খাতুন (ফুটবল মার্কায়) ৩২ ভোট ও আঞ্জুমান আরা হরিণ মার্খায় ২৩ ভোট পেয়েছেন। উল্লেখ্য যে উক্ত নির্বাচনে চেয়ারম্যান ও সদস্য দের ৩ টি ভোট বাতিল হয়েছে এবং মহিলা সদস্যদের ২ টি ভোট বাতিল হয়েছে।

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ