সুমন,মোংলা(বাগেরহাট)সংবাদদাতা:
মোংলায় শ্রমিক ছাটাইয়ের প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও ভাংচুর করেছে শ্রমিকরা। এ সময় বিক্ষুব্ধ শ্রমিকদের সাথে বেপজা সিকিউরিটি ও পুলিশের সাথে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে রাবার বুলেট ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে। এতে বেশ কয়েকজন শ্রমিক, পুলিশসহ সাংবাদিক আহত হন।
সোমবার (২৫ মার্চ) শ্রমিক ছাটাই ও ন্যায্য পাওনার প্রতিবাদে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা সকাল থেকে মোংলা ইপিজেড মূলফটকের সামনে বিক্ষোভ করতে থাকে। খবর পেয়ে মোংলা উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা নারায়ন চন্দ্র পাল, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. হাবিবুর রহমান, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মুশফিকুর রহমান তুষার, মোংলা থানা অফিসার ইনচার্জ কে এম আজিজুল ইসলাম ও বেপজা কর্তৃপক্ষের নের্ততেৃ ঘটনাস্থলে গিয়ে শ্রমিকদের শান্ত করার চেষ্টা করলে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকদের সাথে বেপজা সিকিউরিটি ও পুলিশের সাথে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এক পর্যায়ে শ্রমিকরা পুলিশকে লক্ষ করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে। এ সময় বেশ কয়েকজন শ্রমিক ও পুলিশ আহত হন।
বিক্ষোভ সমাবেশে শ্রমিকরা জানান, প্রায় পাঁচ হাজার শ্রমিককে জোর করে কাগজে স্বই নিয়ে চাকরি থেকে অবৈধভাবে ছাঁটাই করে দেওয়া হয়। ছাটাইয়ের আগে তিনটা বেসিক (তিন মাসের বেতন) ও দুইটা বোনাস পরিশোধের কথা থাকলেও মালিকপক্ষ তা না করে ছাঁটাই করলে শ্রমিকরা এর প্রতিবাদ জানায়। এতে বেপজা এর সিকিউরিটি সদস্যরা শ্রমিকদের মারধর করেছে বলেও অভিযোগ তোলেন তারা।
মোংলা ইপিজেডের ভিআইপি ইন্ডাস্ট্রিজের মো. মিজান বলেন, আমরা সকল আইন মেনেই শ্রমিকদের ছাটাই করেছি।
বাগেরহাট জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম অ্যান্ড অপস্) মো. রাসেলুর রহমান বলেন, ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত পরিবেশ এখন শান্ত আছে।

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ