সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজাকে সামনে রেখে মণ্ডপে মণ্ডপে চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি। আর ক’দিন বাদেই শুরু হবে আরাধনা। রঙতুলির কাজ সেরে নিচ্ছেন প্রতিমা কারিগররা। আজ ২৫ সেপ্টেম্বর মহালয়ার মধ্য দিয়ে শুরু হলো দেবীপক্ষ।

অশুভ শক্তি বিনাশে মর্ত্যলোকে আসছেন দুর্গতিনাশিনী এমনটাই মনে করছেন হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকেরা। ভক্ত অনুরাগীরা প্রসন্ন শারদ উৎসবে। মন্দিরে মন্দিরে উৎসবের আমেজ। ১ অক্টোবর ষষ্ঠী পূজার মধ্য দিয়ে শুরু হবে শারদীয় দুর্গোৎসব।

শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি সেরে নিচ্ছেন মাদারীপুরের প্রতিমা শিল্পীরা। রঙতুলির আঁচড়ে দেবী সাজাতে ব্যস্ত তারা। ৪ শতাধিক মন্ডপের জন্য দম ফেলার ফুরসত নেই কারও। প্রতিমাশিল্পীরা বলছেন এবার কাজকর্ম বেশী ব্যস্ততাও বেশী। মাটির কাজ শেষে এখন রং করার পালা বলেও জানান তারা।

মাদারীপুরে ডাসার উপজেলায় প্রায় ৪১ টি মন্ডপে চলছে দুর্গাপূজার প্রস্তুতি। মূর্তির অবয়বের কাজ প্রায় শেষ। পড়তে শুরু করেছে রঙের ছটা। জানালেন ব্যস্ততায় দম ফেলার ফুরসত নেই তাদের।

ডাসার উপজেলার পূজা উৎযাপন কমিটির সভাপতি বিভূতি ভূষণ বাড়ৈ বলেন,ডাসার উপজেলায় ৪১টি পূজা মন্ডপে পূজা উৎযাপন হবে। বিশৃঙ্খলা রোধে আমরা সবাইকে সিসিটিভি স্থাপনের জন্য বলেছি। এবং সার্বিক নিরাপত্তায় প্রশাসনকেও অবগত করেছি।

করোনাকালের উৎসবে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত এবং আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় থাকছে বাড়তি নজরদারি। মাদারীপুরের ডাসার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ হাসানুজ্জামান জানালেন, ধর্ম মন্ত্রণালয়ের গাইডলাইন মেনেই উৎসবের প্রস্তুতি নেয়া হবে। সরকারি বিধি-নিষেধের কারণে অনেক দিকেই নিয়ন্ত্রণ আনা হবে বলেও জানান তিনি। এবং পূজার শেষদিন পর্যন্ত আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী সার্বিক নিরাপত্তা দিতে সর্বদা প্রস্তুত থাকবে।

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ