রেজোওয়ান আলী বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি-

সারাদেশের সাথে একযোগেে
বোতলজাত ও খোলা সয়াবিন তেলের নির্ধারিত নতুন দাম কার্যকর হয়েছে আজ মঙ্গলবার চৌঠা অক্টোবর। প্রতি লিটার বোতলজাত সয়াবিন তেল এখন কেনা যাবে ১৭৮ টাকা মূল্যে। একই সাথে ১৫৮ টাকায় খোলা সয়াবিন তেলের নতুন দাম নির্ধারন হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় দিনাজপুর বিরামপুর শহরের বাজারে সয়াবিন তৈল ক্রয়ে ক্রেতাগণ অনেকটায় স্বস্তি প্রকাশ করেছে। এবিষয়ে বাজার পরিদর্শনে জানা যায়,বোতলজাত ও খোলা সয়াবিন তেলের দাম কম হওয়ায় ক্রেতাদের মাঝে প্রফুল্ল দেখা দিয়েছে।
গতকাল সোমবার বোতলজাত সয়াবিন তেলের দাম লিটারপ্রতি ১৪ টাকা ও খোলা সয়াবিনে লিটারপ্রতি ১৭ টাকা কমানো হয়। বাংলাদেশ ভেজিটেবল অয়েল রিফাইনার্স অ্যান্ড বনস্পতি ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশনের নির্বাহী কর্মকর্তা মো.নুরুল ইসলাম মোল্লার সই করা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য প্রকাশিত হয়েছে। উক্ত সংগঠনটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী,প্রতি লিটার খোলা সয়াবিন তেলের নতুন দাম হবে ১৫৮ টাকা। বর্তমানে বাজারে খোলা সয়াবিন প্রতি লিটার ১৭৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আর ৫ লিটারের বোতলজাত সয়াবিন তেলের দাম ৯৪৫ টাকা থেকে ৬৫ টাকা কমিয়ে করা হয়েছে ৮৮০ টাকা। তার মানে,বোতলজাত ৫ লিটার সয়াবিনে লিটারপ্রতি ১৩ টাকা কমেছে। যদিও এতদিন বোতলজাত সযাবিন তেল বিক্রি হচ্ছিল ১৯২ টাকা লিটার দরে। তবে তেলের দাম কমানো হলেও অনেক দোকানেই রাখা হচ্ছে পূর্বের দাম। এবিষয়ে অনেক ক্রেতারা অভিযোগ করেন। এমন অবস্থায় ক্রেতারা স্হানীয় প্রশাসনের সূ-দৃষ্টি কামনা করেছেন। এবিযয়ে ব্যবসায়ীরা বলছেন,তাদের কাছে বাড়তি দামে কেনা সয়াবিন তেল রয়েছে, এ কারণে এখন কমাতে পারছেন না। নতুন তেল বাজারে আসলে দাম কমানো হবে। তবে ভোক্তারা অবিলম্বে নতুন দাম চূড়ান্ত কার্যকরের দাবি জানিয়েছেন। এজন্য তারা ভোক্তা অধিদপ্তরের নজরদাবি বাড়ানোর দাবি জানান। উল্লেখ্য গত ১৭ই জুলাই সয়াবিন ও পাম তেলের দাম কমায় তেল বিপণনকারী কোম্পানিগুলো। এরপর গত ২৩শে আগস্ট আবার সয়াবিনের দাম লিটারপ্রতি ৭ টাকা বৃদ্ধি করে। দেড় মাসের ব্যবধানে সেই দাম কমানো আবারও কমানো হলো। বর্তমান বাজারে সয়াবিন তৈলের নির্ধারিত মূল্য চূড়ান্ত বাস্তবায়নের ভোক্তাগণের জোর দাবি জানিয়েছেন।।

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ