মো.মাইনুল ইসলাম: গাজীপুর কাশিমপুর থানা এলাকার ৪নং ওয়ার্ডের সারদাগঞ্জ উত্তর পাড়ায় বাবা ওসমান বেপারী(৬০)কে তারই নিজের দুই ছেলে শরিফ এবং বাবু রক্তাক্ত জখম করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান,এ ঘটনাটি খুবই মর্মাহত ও বেদনাদায়ক ১৮ জুন রবিবার বিকেলে ওসমান বেপারীর বড় ছেলে শরিফ বাড়িতে আসে আসার পরে বৃদ্ধ বাবার কাছে টাকা চায়, তখন বাবা ওসমান বেপারী ছেলেকে বলেন, আমার কাছে এখন টাকা নাই, আমি কোত্থেকে তোকে টাকা দিব? টাকা পাবই বা কোথায়? শরীর তখন বাবার সাথে কথা কাটাকাটি করতে থাকেন। এর মধ্যে ছোট ছেলে বাবুও সেখানে আসেন সেও বড় ভাই শরীফের সাথে তাল মিলিয়ে বাবার উপর ক্ষিপ্ত হয়। একপর্যায়ে ছোট ছেলে বাবু বাবার দুই হাত ধরে রাখেন এবং শরীফের হাতের কাছে শক্ত কাঠের বাদাম দিয়ে ওসমান বেপারীকে এলোপাথাড়ি পিটিয়ে বাবা ওসমান বেপারীকে দুই সন্তান মিলে মারাত্মক ভাবে জখম করে পালিয়ে যায়। প্রতিবেশীরা ওসমান বেপারীকে উদ্ধার করে শেখ ফজলুতুন্নেসা কেপিজি হাসপাতালে মুমূর্ষ অবস্থায় ভর্তি করেন।
এলাকাবাসী বলছে, ওসমান বেপারীর দুই ছেলে শরিফ ও বাবু নেশায় আসক্ত এবং প্রায়ই নেশা করে এসে বাবা মায়ের সঙ্গে এরকম উল্টাপল করেন। প্রতিবেশীরা আরো জানান, তাদের বাড়িতে এরকম ঘটনা অহরহ ঘটে থাকেন। আজ হয়তো মারাত্মক আকার ধারণ করেছে।
এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কেউ থানায় কোন অভিযোগ করেননি।

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ