মিজানুর রহমান মিলন,
বগুড়া জেলা প্রতিনিধিঃ

বগুড়ার শিবগঞ্জে বাড়ীতে কাজের কথা বলে ডেকে নিয়ে মোছাঃ নুরজাহান বেগম (৪০) নামে এক নারীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে একই গ্রামের সাবেক শিক্ষক আলহাজ্ব মফিজুল ইসলাম (৫০) বিরুদ্ধে। ভুক্তাভোগী নুরজাহান শিবগঞ্জ উপজেলার জুড়ী মুন্সিপাড়া গ্রামের মোঃ আব্দুস সামাদের স্ত্রী। অভিযুক্ত শিক্ষক মফিজুল ইসলাম একই গ্রামের মৃত তোফাজ্জল হোসেনের ছেলে।
অভিযোগ সুত্রে জানা যায় গত ২৭/০৬/২০২৩ইং সময় অনুমান ০১.৪৫ ঘটিকার সময় বিবাদী আমাকে কাজের কথা বলে তাহার বাড়ীতে ডেকে নিয়ে বিভিন্ন ধরণের কু-প্রস্তাব দেয়। আমি বিবাদীর কু-প্রস্তাবে রাজি না হইলে বিবাদী আমাকে বারংবার জড়িয়ে ধরার চেষ্টা করে। আমি বারংবার বিবাদীকে বাধা নিষেধ করার পরেও বিবাদী আমার কোন কথা না শুনিয়া পুনরায় আমার কাপড়-চোপড় ধরে যৌন নিপিড়নের করার চেষ্টা করে। পরবর্তীতে আমি বিবাদীকে বাধা প্রদান করিলে বিবাদী আমাকে বিভিন্ন ধরণের ভয়ভীতি ও হুমকি প্রদান করে। বিবাদীর উক্ত ভয়ভীতির কারণে আমি বিবাদীর বাড়ী হইতে চলিয়া আসার সময় বিবাদী আমার পরনের কাপড় টেনে হিচড়ে ছিড়ে শ্রীলতাহানি করে। আমি বিবাদীর বাড়ী হইতে আসিয়া আমার ছেলে মোঃ শাহ আলমকে বিষয়টি খুলিয়া বলিলে আমার ছেলে বিবাদী উক্ত ঘটনার বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করিলে বিবাদী আমার ছেলে কথায় কোন প্রকার কর্ণপাত করে না। বিষয়টি নিয়ে নিকট আত্মীয়-স্বজনদের সহিত আলোচনা করিয়া থানায় আসিয়া অভিযোগ দায়ের করিলাম।
শিবগঞ্জ থানার ভাপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রউফ বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপের্ক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ