মানিক হোসেন, রাজশাহী প্রতিনিধি :
বিএনপির সমাবেশে ফোন চুরির অপরাধের অভিযোগে পুলিশ এক ব্যক্তিকে আটক করে। এমন মুহূর্তে দৈনিক উপচার পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার মোঃ নাঈম হোসেন ওই চিত্র ধারণের সময় মালেক নামের এক পুলিশ সদস্য রিপোর্টারের ফোন কেড়ে নেয়ার চেষ্টা করেছেন বলে জানা গেছে।
শনিবার (৩ ডিসেম্বর) বেলা দেড় টায় পাঠান পাড়া মাদ্রাসা মাঠের বাহিরে এমন ঘটনা ঘটে।
ওই রিপোর্টার জানান, আমি পুলিশ সদস্যের ছিনতায়কারীর মত আচরণ দেখে অবাক হয়ে গেছি ।
ওই সময় আমি বিএনপি`র বিভাগীয় গণসমাবেশের সংবাদ সংগ্রহ করছিলাম। দেখলাম পুলিশ সদস্য এক ব্যক্তিকে ধরে নিয়ে যাচ্ছে। সেখানে আমি ভিডিও করতে গেলে সেই পুলিশ সদস্য আমার ফোন ছিনতায়কারীর মতো ছিনিয়ে নেওয়ার জন্য হাত চালান। কিন্তু আমার জানা মতে, সাংবাদিকের কাছ থেকে কখনো কলম বা ক্যামেরা ছিনিয়ে নেওয়ার এখতিয়ার তার নেই।
সেখানে দেখলাম পুলিশ সদস্য সেই ব্যক্তিকে ফোন চোরের অভিযোগে আটক করছে। সে ফোন চোর হতেই পারে। সে বিএনপি`র গণসমাবেশে যোগ দিতেও আসতে পারে আবার ফোন চুরি করতে আসতেও পারে ।
কিন্তু পুলিশ সদস্য গণমাধ্যমকর্মীর প্রেসকার্ড দেখার পরও ফোন কেনো অন্ধের মত কাড়তে চাইলেন?
তিনি চোর ধরার মত ভালো কাজ করছিলেন। যদি সে ফোন চোর হয় তাহলে আপনি তো অনেক ভালো কাজ করছিলেন। তাঁর ভালো দিক তুলে ধরার জন্য আমি ভিডিও টা ধারণ করছিলাম, তাহলে তিনি কেনো আমার কাজে বাঁধা দিলেন। কেন ঝাঁপিয়ে পড়লেন আমার ফোনের দিকে? তাহলে কি বুঝবো ওই পুলিশ সদস্যের মতলব খারাপ ছিল?
রিপোর্টার তাঁর ফেসবুক স্ট্যাটাসের মাধ্যমে জানান,”স্মরণ করিয়ে দিতে চাই, মতলব ঠিক করেন, আমার মনে হয় মালেক সাহেব, রাজশাহীর সাংবাদিকদের একতা সম্পর্কে আপনার ধারণা নেই। একটু পিছনে তাকিয়ে দেখেন, সাংবাদিকদের সাথে খারাপ ব্যবহার করার জন্য সেদিন রাজ পাড়া থানায় কি অবস্থা সৃষ্টি হয়েছিল।
জানা গেছে রাজশাহী অনলাইন সাংবাদিক ফোরামের এবং জাতীয় সাংবাদিক সংস্থায় রাজশাহী বিভাগীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।
এঘটনায় জাতীয় সাংবাদিক সংস্থার বিভাগীয় কমিটির সভাপতি নুরে ইসলামি মিলন জানান, সমাবেশ থেকে পুলিশ কাউকে আটক করবে, তাঁর কারণ জানার অধিকার রিপোর্টার রাখে। তাছাড়াও প্রশাসনের তথ্য প্রচারে রাজশাহীর সাংবাদিকরা নিরলস কাজ করছেন। সেখানে, পরিচয় পত্র দেখার পরও সাংবাদিকের ফোন বা কোন কিছু ছিনিয়ে নেয়ার প্রবণতা খুবই খারাপ ও নিন্দনীয় বিষয়।

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ