উজ্জ্বল কুমার সরকার, নওগাঁঃ
নওগাঁর সাপাহার উপজেলার ঐতিহ্যবাহী জবই বিলে মৎস্য আহরণের শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে নওগাঁ জেলা প্রশাসক মোঃ গোলাম মাওলা প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে মৎস্য আহরণের শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন।সাপাহার উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাসুদ হোসেন এর সভাপতিত্বে জবই বিলের বাগডাঙ্গা ঘাটে অনুষ্ঠিত মৎস্য আহরণ অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে নওগাঁ জেলা পুলিশ সুপার মুহাম্মদ রশিদুল হক, সাপাহার উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শাহজাহান হোসেন, উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোসাঃ রোজিনা খাতুন, শিরন্টি ইউপি চেয়ারম্যান বোরহান উদ্দীন, উপস্থিত ছিলেন।অনুষ্ঠানে মৎস্য কর্মকর্তা রোজিনা পারভীন জানান, এবছর প্রচন্ড খরায় কষ্ট করে বিলের অভায়াশ্রমে মা’ মাছ গুলিকে রক্ষা করায় বিলে প্রচুর পরিমান মাছের জম্ম হয়েছে, যার ফলে এবছর এই বিলে ৫শ’ ৫৫ মেঃ টন মাছ উৎপাদনের লক্ষ মাত্রা ধরা হয়েছে যার বাজার মূল্য প্রায় ২৫ কোটি টাকার মতো। গত বছর এই বিল হতে মাৎস্য আহরণের পরিমান ছিল ৫শ’ ২৭মেঃ টন।
তিনি আরোও জানান, সাপাহার উপজেলার জবই বিল মৎস্য প্রকল্পের ৭শ’ ৯৯ জন মৎস্যজীবী এই মৎস্য সম্পদ আহরণের কাজে নিয়োজিত থাকবে। গত বছর প্রকল্পের মেয়াদ শেষ হওয়ায় প্রতি দিন ৪ হাজার ৩শ ৮৪ টাকা করে রাজস্ব কোষাগারে জমা দিয়ে বিলটি জেলা প্রসাশসক এর দপ্তর হতে লিজ গ্রহণ করে মৎস্যজীবীগন মাছ চাষ করে আসছে। গত মার্চ মাসে বিলে মাছ ধরা বন্ধ ঘোষনা করে দীর্ঘ ৬ মাস পর বৃহস্পতিবারে মৎস্য আহরণের উদ্বোধন করা হয়। জবই বিল প্রকল্পের মৎস্যজীবী দল নেতা মোন্তাজ আলী, ও বকুল হোসেন এর সাথে কথা হলে তারা জানান যে, অন্যান্য বছরের তুলনায় এবছর বিলে প্রচুর পরিমান মাছ রয়েছে, সকল মৎস্যজীবীগন এবারে অনেক লাভের মুখ দেখবেন। তাদের প্রকল্পে বর্তমান মৎস্য আহরণের ৫% হিসেবে সঞ্চিত টাকার পরিমান ৩১ লাখ ৩৮ হাজার। যা হতে প্রতি বছর মৎস্যজীবীগন ঈদ পরবে ও বিভিন্ন উৎসবে অর্থ খরচ করে থাকেন। বর্তমান সরকারের শাসনামলে ঐতিহ্যবাহী জবই বিলটি মৎস্য জীবীদের মাঝে প্রকল্প তৈরী করে দেয়ায় সাপাহারে মৎস্য জীবীগন বেশ সুখেই রয়েছেন। ভবিষ্যতে প্রকল্পের মেয়াদ বৃদ্ধি করলে এলাকার মৎস্য জীবিগন অতীতের তুলনায় সুখে জীবন যাপন করবে তাই তারা প্রকল্পের মেয়াদ বৃদ্ধির জন্য সরকারের সুদুষ্টি কামনা করেছেন।

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ