উজ্জ্বল কুমার সরকার, নওগাঁঃ
দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। নওগাঁ-৪, মান্দা আসনের দিনদুপুরে মৈনম বাজারে শনিবার নির্বাচনী সহিংসতার ঘটনায় পৃথক মোট ৩টি মামলা করা হয়েছে। পুলিশকে মারধর ও সরকারী কাজে বাধাদেওয়ার অভিযোগ এনে মান্দা থানার এস আই আশিকুর রহমান বাদী হয়ে একটি মামলা করেন। এ মামলায় নৌকা প্রতিক এর প্রার্থী’র ৭ জন কর্মী-সমর্থক এর নাম উল্লেখ সহ অজ্ঞাতনামা আরো ৩০-৪০ জনকে আসামী করা হয়েছে।এছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী এসএম ব্রহানী সুলতান মামুদ গামা তার (ট্রাক প্রতীক) এর নির্বাচনী অফিস ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা-ভাঙচুরের ঘটনায় তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার সুজন চন্দ্র বাদী হয়ে নৌকা প্রতিক এর প্রার্থীর ২৫ জন কর্মী-সমর্থক এর নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা ২০-২৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। অপরদিকে একই ঘটনায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর ২২ জন কর্মী-সমর্থক এর নাম উল্লেখ পূর্বক অজ্ঞাতনামা ৮০-১০০ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন নৌকা প্রতিক এর প্রার্থীর কর্মী আব্দুল হান্নান। পৃথক মামলা হওয়ার পরই মান্দা থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে নৌকা প্রার্থীর ৩ জন সমর্থক ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর ১জন কর্মীকে গ্রেফতার করেছেন। গ্রেফতারকৃত ৪ জন হলেন, আশিক মন্ডল (২৭), সাদ্দাম হোসেন (২৮), আব্দুল হান্নান (২৬) ও আনোয়ার হোসেন (৩৮)। গ্রেফতার কৃত ৪ জনকে রবিবার ২৪ ডিসেম্বর বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে নওগাঁ জেলা কারাগারে প্রেরন করেছেন পুলিশ। উল্লেখ্য যে- গত শনিবার দুপুরে নওগাঁ-৪, মান্দা আসন এলাকা তথা মান্দা উপজেলার মৈনম বাজারে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী ব্রহানী সুলতান মামুদ গামার (ট্রাক প্রতীক) এর নির্বাচনী অফিসে ও প্রার্থীর ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর ও মারপিট এর ঘটনা ঘটে। ঐ হামলায় স্বতন্ত্র প্রার্থী’র ৩ জন কর্মী-সমর্থক আহত হোন। এসময় হামলাকারীদের নিবৃত্ত করতে গিয়ে মারধরের শিকার হোন ডিএসবি ওয়াচার সহ ৪ জন পুলিশ সদস্য।

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ