উজ্জ্বল কুমার সরকার, নওগাঁঃ
নওগাঁ-৩ (মহাদেবপুর-বদলগাছি) আসনে উৎসবমুখর পরিবেশে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রচার-প্রচারণা চলছে। হাটবাজার ও চায়ের দোকান এবং পাড়া মহল্লায় সূর্যোদয় থেকে গভীর রাত পর্যন্ত আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টি ও স্বতন্ত্রসহ প্রার্থীদের কর্মী সমর্থকদের চলছে প্রচার প্রচারণা। ৭ জানুয়ারির ফাইনাল খেলায় কে জিতবেন তা নিয়ে কর্মীসমর্থক এবং সাধারণ ভোটারদের মধ্যে চায়ের কাপে ঝড় উঠছে। চলছে প্রার্থীদের সার্বিক দিক নিয়ে চুলচেরা বিশ্লেষণ। তবে ট্রাক প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থীকে নিয়ে অস্বস্তিতে রয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী।
এদিকে নির্বাচনী উৎসবের মধ্যে স্বতন্ত্র প্রার্থীর (ট্রাক প্রতীক) ও নৌকা নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর, কর্মী সমর্থকদের প্রচারে বাধা এবং মারপিট করে জখম করার অভিযোগ একে অপরের দিকে আঙ্গুল উঠেছে। মামলা হামলার আতঙ্কে রয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মী এবং সমর্থকরা। নির্বাচনী আচরণবিধির তোয়াক্কা না করে গভীর রাত পর্যন্ত প্রার্থী ও তাদের কর্মী সমর্থকরা প্রচার-প্রচারণা এবং স্বতন্ত্র প্রার্থীর নির্বাচনী অফিস ভাঙচুরসহ পোস্টার, ব্যানার ছিঁড়ে ফেলার ঘটনায় থানায় ৫টি পাল্টাপাল্টি মামলা হয়েছে। এর মধ্যে নৌকার পক্ষে ৩টি ও স্বতন্ত্র ট্রাকের পক্ষে ২টি। নির্বাচনের দিন ঘনিয়ে আসার সঙ্গে সঙ্গে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রার্থী এবং আওয়ামী লীগের স্বতন্ত্র প্রার্থীর (ট্রাক প্রতীক) কর্মী সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা বাড়ছে।প্রতীক পাওয়ার দিন থেকেই এ আসনের আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী সাবেক সিনিয়র সচিব সৌরেন্দ্রনাথ চক্রবর্ত্তী, স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান সংসদ সদস্য মহাদেবপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. ছলিম উদ্দিন তরফদার সেলিম ট্রাক প্রতীক, স্বতন্ত্র প্রার্থী মাহফুজা আকরাম চৌধুরী মায়া ঈগল প্রতীক, জাতীয় পার্টির মাসুদ রানা নাঙ্গল প্রতীক নিয়ে মাঠে ব্যাপক প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। মহাদেবপুর ও বদলগাছী উপজেলার হাটবাজার, গ্রাম ও পাড়া মহল্লায় ছেয়ে গেছে পোস্টার এবং ব্যানারে। সেই সাথে নির্মাণ করা হয়েছে নির্বাচনী তোরণ। তবে কাঁচি প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী মাহবুব-উল-আলম মান্নফ (শুভ), কেটলি প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী কৌতুক অভিনেতা শামীনুর রহমান শামীম (চিকন আলী) এবং সোনালি আঁশের তৃণমূল বিএনপি প্রার্থী সোহেল কবির চৌধুরীর প্রচারণা শুধুমাত্র পোস্টার ও মাইকেই সীমাবদ্ধ রয়েছে। তাদের কর্মীদের তেমন কোনো সাড়া পাওয়া যাচ্ছে না।
ট্রাক প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. ছলিম উদ্দিন তরফদার সেলিমের জ্যেষ্ঠ পুত্র সাকলাইন মাহমুদ রকি অভিযোগ করে বলেন, নৌকার প্রার্থী সৌরেন্দ্রনাথ চক্রবর্ত্তীর কর্মীরা প্রচারণা শুরুর পরদিন থেকেই তাদের বেশ কয়েকটি নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর, পোস্টার, ব্যানার ছিড়ে ফেলাসহ কর্মী সমর্থকদের মারপিটে গুরুতর জখম করা এবং প্রচার- প্রচারণায় বাধা দিয়ে আসছে। ওইসব ঘটনায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর ট্রাক প্রতীকের পক্ষ থেকে জেলা রিটার্নিং অফিসার এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার বরাবর অভিযোগ দেয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।অপরদিকে ট্রাকের স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মীরা নির্বাচনী এলাকার ৯ নং চেরাগপুর ইউনিয়নের নং চৌমাশিয়র বাগধানা মোড়ে মোড়ে ২৬ শেষ ডিসেম্বর মঙ্গলবার দিবাগত রাতে নৌকার নির্বাচনের অফিসে অগ্নিসংযোগ করেছে দুর্বৃত্তরা। কয়েকটি নৌকার অফিস ভাঙচুর ও আগুন দেয় বলে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতারা অভিযোগ করেন।
এ আসনের প্রতিদ্ব›দ্বী প্রতিটি প্রার্থীই জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী হলেও সাধারণ ভোটাররা বলছেন, হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে স্বতন্ত্র প্রার্থীর ট্রাক প্রতীকের সঙ্গে নৌকাপ্রতীকের। কোনো দলকে সমর্থন করেন না এমন অনেক ভোটার রয়েছেন। তারা এলাকার উন্নয়নে যে কাজ করেন তাকেই ভোট দেন। এমন ভোটারের সংখ্যাও কম নয়।এ আসনে আওয়ামী লীগ বিরোধী শিবিরের ভোটও রয়েছে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে। ওই ভোটাররা তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দেন। এসব ভোটের পরিমাণ লক্ষাধিক। তারা যেদিকে গড়াবেন, তার পাল্লাই ভারি হবে বলে স্থানীয় সচেতন মহল মনে করছেন। তাই নিজ নিজ অবস্থান থেকে ওইসব ভোটারদের নিজেদের পক্ষে টানতে এ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী ও তাদের কর্মীরা আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। একই সঙ্গে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী ও দলটির স্থানীয় অধিকাংশ নেতাকর্মী সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডের চিত্র ভোটারদের মধ্যে তুলে ধরার পাশাপাশি ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন এবং ভোট প্রার্থনা করছেন।একই কাজ করছে স্বতন্ত্র প্রার্থী ট্রাক মার্কার সেলিমের কর্মী বাহিনী। ছলিম উদ্দিন তরফদার সেলিম ২০১৪ সালে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে এবং ২০১৮ সালে নৌকার প্রার্থী হয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। এই দুই টার্মে তিনি এলাকার ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন। এসব উন্নয়নের কথা তুলে ধরে এলাকার উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে দলমত নির্বিশেষে আবারো তাকে নির্বাচিত করার আহ্বান জানাচ্ছেন।

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ