ধামইরহাট (নওগাঁ) প্রতিনিধি
নওগাঁর ধামইরহাটে ঈদের দিন বিকেলে বাড়ী থেকে বেড়িয়ে যান ১৫ বছর বয়সী কিশোর মো. জিহাদ হোসেন। সেই থেকে আজ অবধি পরিবারের লোকজন হন্নে হয়ে খুজছে সেই কিশোরকে। হারানো ওই কিশোর উপজেলার অমরপুর গ্রামের আয়েজ উদ্দিনের ছেলে। মা-বাবার বিবাহ বিচ্ছেদ হওয়ায় মায়ের কাছেই থাকতেন ওই কিশোর, ছোট ছেলেকে হারিয়ে প্রায় দিশেহারা মা মোসা. জাহানারা বেগম। এ বিষয়ে ধামইরহাট থানায় একটি জি.ডি দায়ের করেছেন মা জাহানারা বেগম।
জিহাদ হোসেনের বড় ভাই মো.রাজু হোসেন জানান, ঈদের দিন নামাজ পরে বাড়ী থেকে বের হয়। বিকেলে আমারই এক পরিচিত ভাই তাকে নিমতলী বাজারে ঘুরতে দেখেছিল। সে নিমতলী বাজারে একটি কসমেটিকের দোকানে কাজ করতো। ঈদের আগের দিন ওই কসমেটিকস দোকানে সে রাত ২ টা পর্যন্ত কাজ করেছিল, দোকান মালিকের কাছে কাজের জন্য বোনাস-বখসিস চেয়েছিল ছোট ভাই জিহাদ হোসেন, তা না দেওয়ায় জিহাদ হোসেন দোকানদারকে গালি-গালাজ করে সে বাড়ী এসেছিল, ঈদের নামাজের পর বাড়ী থেকে বেড় হয়ে আর ফিরেনি। তার পরনে ফুলহাতা টিশার্ট, প্যান্ট ও চোখে সানগ্লাস ছিল।
ধামইরহাাট থানার ওসি মোজাম্মেল হক কাজী জানান, ঈদের দিনে ছেলেটি উপজেলার বিভিন্ন জায়গায় ঘোরাঘুরি করছিল ও তাকে অনেকেই দেখেছিল, কিন্তু তাকে সন্ধ্যার পর আর কেউ দেখতে পায়নি, তার মোবাইল ফোনটিও বন্ধ রয়েছে, আমরা থানা পুলিশ তার খোজ খবর রাখার চেষ্টা করছি এবং তাকে অনুসন্ধান অব্যাহত রয়েছে।

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ