এম,ডি রেজওয়ান আলী, বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:- দিনাজপুর বিরামপুর ৪নং দিওড় ইউনিয়নে টিসিবির পণ্য বিতরণে এলাকার জনগণ স্বস্তি প্রকাশ করেছে বলে জানা যায়। ২১ মার্চ বিরামপুর উপজেলার ৪নং দিওড় ইউনিয়ন পর্যবেক্ষণে জানা যায়,আজকে ইউনিয়নে টিসিবির পণ্য বিক্রয় করা হয়েছিল। উক্ত পণ্য ক্রয়ে জনসাধারণ স্বস্তি প্রকাশ করেছে বলে অত্র এলাকার জনসাধারণ জানান। এ বিষয়ে তারা বলেন ঊর্ধ্বমুখী বাজার একটানা ঝড় বৃষ্টি এরই মাঝে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সাধারণ মানুষের জন্য এমন ব্যবস্থা গ্রহণ করায় তাকে অনেক সাধুবাদ জানাই। একই সাথে তারা দিওড় ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আব্দুল মালেক মন্ডলকেও অনেক ধন্যবাদ জানান।
তারা বলেন ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আব্দুল মালেক মন্ডল তিনি ভালো মানুষ জনদরদী এবং দেশ ও জনগণের কল্যাণে সব সময় নিজেকে নিয়োজিত করে রেখেছেন। তিনি আজকে টিসিবির পণ্য বিক্রয় সুন্দর ভাবে পরিবেশন করেছেন। বর্তমান সরকারের ব্যবস্থাপনায় টিসিবির পণ্যা,যেনো স্বল্প আয়ের মানুষদের জন্য অতি প্রয়োজনীয় হয়ে পড়েছে। বিরামপুর উপজেলার ৪ নং দিওড় ইউনিয়নে ২ হাজার ২শত উপকাভোগী পরিবারের মাঝে টিসিবির পণ্য বিক্রয় কার্যক্রম (বিতারণ) করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় টিসিবির পণ্য বিক্রয় কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন দিওড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আঃ মালেক মন্ডল।
চেয়ারম্যান আঃ মালেক মন্ডল জানান, ৫২৫ টাকায় মিলছে ৫ কেজি চাল,২ লিটার তেল ও ২ কেজি মশুর ডাল ছোলা ১কেজি মোট ২২ শত সুবিধাভোগী ফ্যামিলি কার্ড ধারি পরিবার স্বল্পমূল্যে এসব পণ্য কিনতে পারবে। এসময় উপস্থিত ইউপি চেয়ারম্যান আঃমালেক মন্ডল,ইউপি সচিব মাসুদুর রহমান,ডিজিটাল সেন্টারের উদ্বোগতা মোছাঃ ফৌজিয়া আকতার,ইউপি সদস্য মোক্তার হোসেন,ইউপি সদস্য আজগর আলী,ইউপি সদস্য রবিউল ইসলাম,ইউপি সদস্য আজগার আলী,
ইউপি সদস্য আকরামুল হক,ইউপি সদস্যা ফেন্সিয়ারা,ইউপি সদস্যা আরিফুননা বেগমসহ স্থানীয় সম্মানিত ব্যক্তি বর্গ প্রমুখ।
স্বল্পমূল্যে টিসিবি পণ্য ক্রয়ের জন্য পরিষদ চত্বরে শত শত লোকজনের ভিড় জমতে থাকে,ফ্যামিলি কার্ড সুবিধাভোগী লোকজনদের কাছে কিছু জানতে চাইলে ভ্যানচালক মোঃ রিপন মিয়া,অটোচার্জার চালক মোঃ শহিদুল, ভ্যানচালক মোঃ আলম,দিনমুজুর মোঃ রব্বান আলীসহ সাধারণ কিছু স্বল্প আয়ের লোকজন ও চুল কারখানায় খেটে খাওয়া মোছাঃ স্বপ্না,আম্বিয়া মমতাজ বেগম,মুর্শিদা খাতুন,উল্লেখ্য তাঁরা বলেন,বর্তমান নিত্য প্রয়োজনীয়, চাল,ডাল,তেলে ও ছোলা যে দাম আমাদের মত মানুষেরা প্রতিদিনের আয় অনুযায়ী বাজারে গিয়ে এসব জিনিস কিনে খাওয়া সম্ভব নয়,সেই জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এবং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আঃ মালেক মন্ডল কে ধন্যবাদ জানাই তিনি আমার (আমাদের) মত গরিবের এরকম ব্যাবস্থা কার্ড করে দিয়েছেন বলেই আজ পরিবারের মুখে দুবেলা দুমুঠো ডাল-ভাত দিতে পারতেছি। সর্ব সাধারণ মানুষ জানান,বর্তমান বাজারে পণ্যের দাম অনেক বেশি,এরই মধ্যে সরকারের এমন ব্যবস্থা সন্তোষজনক এই রকম কার্যক্রম অব্যাহত থাকায় আমাদের অনেক উপকার হচ্ছে।
পরিশেষে দিওড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আঃ মালেক মন্ডল জানান,বর্তমান বাজারে পণ্যের দাম খুবই চড়া এই অবস্থায় সরকার গরীব অসহায় মানুষের মাঝে টিসিবির পণ্য বিক্রয় কার্যক্রম (বিতরণ) করায় জনসাধারণ অনেক স্বস্তি পেয়েছে। বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ তিনি অসহায় গরিব নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য টিসিপির পণ্য (বিতরণ) বিক্রয় কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছেন। এই চলোমান মানবিক সহয়তা কার্যক্রম অব্যাহত রাখলে নিম্ন আয়ের মানুষদের অনেক উপকার হবে বলে আমি বিশ্বাস ও আস্থা রাখি। অতি সুন্দর ভাবে টিসিবির পণ্য বিতরণে এলাকার জনসাধারণ করেছেন।

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ