জহর হাসান সাগর
সাতক্ষীরার তালা উপজেলার খলিলনগর ইউনিয়নের উত্তর নলতা গ্রামে পারিবারিক শত্রুতার জের ধরে খাস জমির উপর নির্মিত কালভার্টের মুখ মাটি দিয়ে বন্ধ করে জলবদ্ধতা সৃষ্টির অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও গন্যমাণ্য ব্যক্তিদের কাছে অভিযোগ দিয়েও মিলছে না প্রতিকার।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উত্তর নলতা গ্রামের মৃত.নুরুল ইসলাম শেখের পুত্র কামরুল ইসলামের দোকানের সামনে রাস্তা ও খাস জমি উপর নির্মিত কালভার্টের মুখ বন্ধ করে বৃষ্টির পানি চলাচলে বাধা সৃষ্টি করে রেখেছে কতিপয় স্বার্থনেষী মহল। এতে করে পানিবন্দী হয়ে পড়েছেন প্রায় ২৫টির অধিক পরিবার।

এঘটনায় বৃষ্টিকালের পানিতে ডুবেছে ২৫ টির অধিক পরিবারে ঘর-বাড়ি সহ ফসলী জমি। এমনকি চলাচলের পথও তলিয়ে গেছে। কৃষি জমিগুলো পানির নিচে রয়েছে।

অভিযোগ সূত্রে জানাযায়,একই এলাকার আয়ুব আলী সরদার,এবাদুল সরদার,আরিফুল জামান বাবু,আতিয়ার সরদার,জাহাঙ্গীর সরদার,রফিকুল ইসলাম শেখ,রাসেল শেখ ও সাইদুল সরদাররা যোগসাজছে ইউনিয়ন পরিষদ কতৃক খাস জমি ও সরকারী রাস্তার উপর বৃষ্টির পানি নিষ্কাশনের জন্য নির্মিত কালভার্টের মুখ বন্ধ করে জলবন্ধতা সৃষ্টি করেছেন।

তারা বলেন, অভিযোগ পক্ষ খাস জমি দখল করে আছেন। তাদের ওই পাশ দিয়ে পানি নিষ্কাশনের জন্য ড্রেন বা জায়গা দিতে বলা হয়েছে। কিন্তু তারা জায়গা না দেওয়ায় কালভার্টের মুখ বন্ধ করে রাখা হয়েছে।

অভিযোগকারীরা বলেন, দীর্ঘ ৩০-৩৫ বছর ধরে ইউনিয়ন পরিষদ কতৃক নির্মিত কালভার্টের পানি খাস জমির মাঝ বরাবর দিয়ে বিলে নিষ্কাশন হয় । কিন্তু কতিপয় স্বার্থনেষী মহল তাদের স্বার্থ উদ্ধার করতে কাল ভার্টে মুখ বন্ধ করে রেখেছেন। বিধায় একটু বৃষ্টি হলেও আমাদের ২৫-৩০ পরিবারের পানি বিলে না যেতে পরায় জলবদ্ধতার চরম আকার ধারণ করেছেন। সামান্য বৃষ্টিতে আমাদের ঘর-বাড়ি,উঠান প্লাবিত হয়ে যাচ্ছে। এটি মূল কারণ হলো ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আমরা একজনের পক্ষে ভোট করি। আর প্রতিপক্ষরা বর্তমান নির্বাচিত চেয়ারম্যান এর পক্ষে ভোট করেন। সেই কারণেও স্থানীয় জনপ্রতিনিধি সহ গণ্যমাণ্য ব্যক্তিদের অবহিত করা হলেও তারা কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেননি।

সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান শেখ আজিজুল ইসলাম রাজু,ওই গ্রামে আমার বাড়ি। আমি চেয়ারম্যান থাকাকালীন সরকারী রাস্তার মধ্যদিয়ে কালভার্ট নির্মাণ করেছিলাম। এবং পানি নিষ্কাশনের জন্য খাস জমির উপর দিয়ে ড্রেন করা হয়েছিল। কিন্তু কতিপয় কিছু স্বার্থনেষী গ্রামের লোকরা ইচ্ছা করে কালভার্ট এর মুখ বন্ধ করে রেখেছেন। বিধায় সৃষ্টি হচ্ছে জলবদ্ধতা।

অভিযোগকারী উত্তর নলতা গ্রামের নুরুল ইসলাম,আতিয়ার শেখ,মোহাম্মাদ আলী শেখ,মিজানুর রহমান,রিজাউল শেখ,আসলাম শেখ,আছাদুর রহমান শেখ,কামরুল ইসলাম শেখ,রা এই জলবদ্ধতা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার,সহকারী কমিশনার(ভূমি) ও অফিসার ইনচার্জ তালা থানার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ