ইনছান আলী,
ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ
ঝিনাইদহে বরুণ ঘোষ হত্যা মামলায় সাতজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার (১০ জানুয়ারি) রাতে শহরের হামদহ ও ব্যাপারীপাড়াসহ বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতরা হলেন, ঝিনাইদহ শহরের হামদহ ঘোষপাড়া এলাকার কার্তিক ঘোষ ও তার ছেলে কল্লোল ঘোষ, কামারকুন্ডু এলাকার আলতাফ হোসেনের ছেলে সবুজ হোসেন, হামদহ এলাকার তফসের হোসেনের ছেলে আইয়ুুব আলী, ইসলামপাড়ার ডাবলু মিয়ার ছেলে নয়ন মিয়া, ব্যাপারীপাড়ার মোজাম্মেল হকের ছেলে মুন্না ও রমজান আলীর ছেলে হাতকাটা তরুণ। ঝিনাইদহ সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মীর আবিদুর রহমান জানান, আওয়ামী লীগ কর্মী বরুণ ঘোষ হত্যা মামলার এজাহার নামীয় সাতজন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে তাদের আদালতে সোপর্দ করা হয়। তাদের রিমোন্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলেও ওই কর্মকর্তা জানান। এদিকে গত বুধবার রাতে নিহত বরুণ ঘোষের স্ত্রী বাদী হয়ে নয় জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও ৯/১০ জনকে আসামি করে ঝিনাইদহ সদর একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। বরুণ কুমার ঘোষ ঝিনাইদহ পৌর এলাকার হামদহ ঘোষপাড়ার নরেন ঘোষের ছেলে। উল্লেখ্য মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বরুণ ঘোষ বাড়ি থেকে বের হয়ে ঘোষপাড়া ব্রিজ মোড় এলাকার একটি দোকানে বসে ছিলেন। এ সময় ৫/৭ জন দুর্বৃত্ত তাকে মানুষের সামনে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে গুরুতর আহত করে ফেলে রেখে যায়। স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত বরুণ ঘোষ ঝিনাইদহ জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সদস্য ছিলেন। বরুণ ঘোষ হত্যার পর আওয়ামীলীগসহ বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ ক্ষোভে ফেটে পড়েন এবং সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল করেন।

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ