জুয়েল হোসেন (বিশেষ প্রতিনিধি) গাজীপুর কালিয়াকৈর উপজেলার হরিনহাটি এলাকায় শামসুন্নাহার মামুনী শিলা(২৫) নামের এক নারী পোশাক শ্রর্মীককে হত্যা করেছে ঘাতক স্বামী রুবেল হোসেন (৩৫)। বুধবার সকাল ১০ ঘটিকায় জমসেদ বেপারীর ভাড়া বাড়িতে এ মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে।
নিহত নারী শ্রমিক গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার সুরাহার মধুপুর এলাকার শামসুল হকের মেয়ে এবং ঘাতক স্বামী রুবেল হোসেন একই এলাকার আশরাফ হোসেনের ছেলে।
নিহত শামসুন্নাহার ও তার স্বামী হরিনহাটি এলাকায় জমসেদ বেপারীর বাড়িতে ভাড়া থেকে এপেক্স লেঞ্জারী নামক পোশাক কারখানায় চাকরিরত ছিলেন, কিন্তু স্বামী রুবেল হোসেন মাদকাসক্ত হওয়ায় ছয় মাস আগেই তাকে চাকুরী থেকে বরখাস্ত করে কারখানা কতৃপক্ষ।
নিহতের পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ১২ বছর আগে তাদের পারিবারিক ভাবে বিয়ে হয়, বিয়ের সময় শামসুন্নাহারের বয়স ছিল ১৩ বছর। বাল্যবিবাহের কারনেই স্বামী স্ত্রীর মধ্যে বিভিন্ন সময় ঝগড়ার সৃষ্টি হতো। এছাড়া স্বামী রুবেল মাদকাসক্ত হওয়ার কারনে কোন প্রকার কাজকর্ম না করায় সংসারে অভাব অনটন লেগেই থাকতো। এরই প্রেক্ষিতে বুধবার সকালে দুজনের মধ্যে ঝগড়ার এক পর্যায়ে ধারালো বটি দিয়ে স্বামী রুবেল তার নিজ স্ত্রীকে জবাই করে হত্যা করে এবং ঘরের ভিতর থেকে দরজার সিটকিনি আটকে দেয়।

এ ঘটনায় খবর পেয়ে কালিয়াকৈর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে এবং লাশ উদ্ধার করার চেষ্টা করলে ঘাতক স্বামী দরজা খুলে বাহিরে আসার অস্বীকৃতি জানায়। পরবর্তীতে পুলিশ ফায়ার সার্ভিসে খবর দেন এবং টানা ৪ ঘন্টা শ্বাসরুদ্ধকর অভিযান চালিয়ে নিহত নারীর লাশ উদ্ধার ও ঘাতক স্বামীকে আটক করতে সক্ষম হন পুলিশ।

এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কালিয়াকৈর থানার অফিসার ইনচার্জ আকবর আলী খান জানান, ঘাতক স্বামীকে চার ঘন্টা শ্বাসরুদ্ধকর অভিযান চালিয়ে আটক করা হয় এবং নিহতের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ঘাতকের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন, তবে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে পারিবারিক কলহের জেরেই তাকে হত্যা করা হয়েছে।

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ