মোঃ সোহেল মিয়া,বিশেষ প্রতিনিধি:
কিশোরগঞ্জের নিকলীতে শুক্রবার দুপুরে বাক প্রতিবন্ধী এক গৃহবধুর শালিশ বৈঠকে উভয় পক্ষের মারধরের অভিযোগ উঠেছে। এতে আহত হয়েছে অন্তত চার জন, আহত হলেন মোঃ জমির উদ্দিন (৬০), রায়হান মিয়া (৩৮), মরিয়ম বেগম (৫৫), রুনা আক্তার (৩০)। এর মধ্যে জমির উদ্দিন কে গুরুত্বর আহত অবস্থায় নিকলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এলাকাবাসীর ও মামলার বিবরণে সূত্রে জানা যায় যে, গত চার বছর পূর্বে নিকলী উপজেলা জারইতলা ইউনিয়নের দক্ষিণ জালালাবাদ গ্রামের জমিরউদ্দিনের সৌদি প্রবাসী পুত্র আল মামুনের (২৮) এর সাথে একই এলাকার মোঃ দুলাল মিয়ার বাকপ্রতিবন্ধী মেয়ে মোছাঃ তামান্না আক্তারের (২৪) ইসলামী শরীয়ত মতে বিবাহ হয়। কিছু দিন যাইতে না যাইতেই যৌতুকের টাকা জন্য প্রতিবন্ধী তামান্না কে শশুর বাড়ির লোকজন মারধর নির্যাতন করে আসছে বলে পিতা দুলাল মিয়া দাবি করেন। এই নিয়ে গত ৩১/১০/২২ ইং তারিখে দুলাল মিয়া বাদী হয়ে কিশোরগঞ্জ কোর্টে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে আল মামুন ,জমির উদ্দিনসহ কয়েক জনের নামে একটি মামলা দায়ের করেন। এতে এলাকার চেয়ারম্যান মেম্বারসহ গন্যমান্য ব্যক্তিরা শালিশ বৈঠকে বসিয়া ব্যর্থ হয়। এ ব্যাপারে গতকাল বিকেলে উভয় পক্ষ নিকলী থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। নিকলী থানার ওসি মোহাম্মদ মনসুর আলী আরিফ ঘটনা সত্যতা স্বীকার করেন।

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ