মোঃ সোহেল মিয়া,বিশেষ প্রতিনিধি:
কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলার মসুয়া ইউনিয়নের বেতার গ্রামে গত ৫ ডিসেম্বর সকাল ৯টার দিকে জমি সংক্রান্ত পূর্ব বিরোধের জের ধরে আতিকুল ইসলাম মনিরের নির্দেশে মেহেদী, ওয়াসিম, শহিদুল্লাহ সহ ৬-৭ জন লোক হত দরিদ্র বিল্লাল হোসেনের বাড়ীতে দেশীয় অস্ত্রসজ্জিত হয়ে হামলা চালালে অন্তত ২ জন আহত হয়। আহতদের মধ্যে গুরুতর আহত বিল্লাল হোসেন (৪০) ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ৭ ডিসেম্বর সন্ধ্যার দিকে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। এই ঘটনায় হালিমা আক্তার (৩২) কে গুরুতর আহত অবস্থায় কটিয়াদী সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ছাড়া নিহত বিল্লালের ৬ মাসের শিশু বাচ্ছাকেও মনিরের গংদের হাতে গুরুতর আহত হয়েছেন।
এলাকাবাসী ও থানা সূত্রে জানাগেছে আতিকুল ইসলাম মনির গংরা ওই দিন দেশীয়অস্ত্র লোহার রড কাটের ব্যান্দা লাঠি-শুটা নিয়ে নিহত বিল্লালের বাড়ীতে হামলা চালালে নগদ অর্থ, স্বর্ণলংকার সহ অন্তত ২ লাখ টাকার মালামালের ক্ষতিসাধন হয়েছে বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়। এছাড়াও আতিকুল ইসলাম মনিরের লোকজনের ভয়ে নিহত বিল্লালের পরিবার ও পরিজনরা আতঙ্ক অবস্থায় বসবাস করছেন। এই বিষয়ে নিহত বিল্লালের স্ত্রী রুমা আক্তার বাদী হয়ে আতিকুল ইসলাম মনিরকে প্রধান আসামি করে মেহেদী, ওয়াসিম, ইসমাইল, রহিমা, তাছলিমা, শহিদুল্লাহ কয়েক জনের নাম উল্লেখ করে কটিয়াদী মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলা নং- ০৫ ধারা- ১৪৩/৪৪৭/৪৭৮/৩২৩/৩২৫/৩০৭/৩৫৪/৩৭৯/৪২৭/৩০২/১১৪/৫০৬/৩৪ দন্ড বিধিতে রুজু করা হয়। কটিয়াদী মডেল থানার তদন্ত ওসি মাহফুজুর রহমান প্রতিবেদকে জানান মামলার রেকর্ড করা হয়েছে। আসামীদের দ্রুত গ্রেপ্তার করবেন বলে উল্লেখ করেন।

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ