লেখক:- সালেহ মোঃ আল জাকির ভূইয়া

জানিস খোকা তুই অনেক বড় হয়ে গেলি।

জানিস খোকা আমার একটা ইচ্ছে ছিল,

মনে কি পড়ে ঐ আগের দিনের কথা, ঐ সময়ের ইচ্ছের কথা, কি করে মনে থাকবে এখন যে খোকা অনেক বড় হয়ে গেছে

ঐ যে এক সময় সব কিছু কত সহজ সরল ছিল, কত শত সপ্ন, কত ইচ্ছে বড় হয়ে অনেক কিছু করবে সবাই মিলে, কিন্তু আজকে সব কিছু বিপরীত, সবাই আজ নিজের কথা ভাবছে , ভাবছে না ঐ দিনের এক মোটো ভাতের অভাব কেমন ছিল ,কেমন ছিল পোশাকের অভাব, কেমন ছিল একটি ঘরের অভাব, কেমন ছিল তাদের কষ্টের দিন গুলি , বৃষ্টি এলে ঘরটি বিঝে যেত , মেঘেদের গজনে বুকটা কেপে ওঠত ঘরটা যদি ভেংগে যায় কি করে থাকবে , আজ আর এসব মনে পড়ে না, কি ছিল এমন একটি পরিবারের,

মা বাবা ভাই বোন সবাই কত কষ্ট করেছে এইত বেশি দিন না কত দিন হবে বড় জোর ৪০ বছর হবে, আসলে কি মনে পড়ে ঐ দিন গুলির কথা , সবাই কত অবহেলা করত তদের ,ঐ সময় কষ্ট পেলে মনে মনে আললাহকে বলত তুমি সব যান , আর আজ না এমন করে ভাবতে তাদের সময় নেই ,
এখন যে অনেক টাকা কামায় করে খোকা , কেউ কিছু বললে এখন আর ছাড় দেয় না খোকা, এখন যে অনেক বড় কিছু হয়ে গেছে ,

হটাৎ গাছের মগ ডালে অনেক গুলো কাক কা কা করছে মা বলল কাকের মনে হয় খিদা লাগছে কিছু চাল দিতে মা আবার না বলল থাক কাল তরা কি খাবি, তাই আর কাক কে চাল দেওয়া হলো না, না আজকে এমনটি আর মনে পড়ে না, কারণ খোকা অনেক বড় হয়ে গেছে , খোকা যখন ছোট্ট ছিল কত সরল ছিল, আজকে তার অনেক নতুন মানুষ হয়েছে , তারাই তার অনেক আপন ,
পরিবারের মানুষ গুলি অনেক প্রিয় ছিল তার, তবে আজ তার সব কিছু নষ্ট করে দিয়েছে ,কারণ খোকা এখন অনেক টাকা কামায় করে,

ও মনে কি পড়ে ভোর ভেলা কাজে গিয়ে ৪০ টাকা কামায় করার কথা , তখন বোন ঈদ আসলে নতুন জামা কাপড় কিনে দিত , না হয় বাবা মা, না হয় ভাই এখন আর এসব মনে পড়ে না, কারণ খোকা অনেক টাকা কামায় করে , আগে ১০ টাকা কামায় করতে রিকশা না চড়ে পায়ে হেঁটে চলে যাওয়ার কথা , রাতে না খেয়ে ঘুমিয়ে থাকার কথা , খোকা আজ অনেক বড় হয়ে গেছে ,

ওহ! আজ যদি ঐ দিন গুলি ফিরে পেত খোকার না মনে পড়ত , কি সুন্দর ছিল দিন গুলি ,
আজ সব কিছু হয়েছে কিন্তু চলে গেল পরিবারের ঐ মানুষ গুলির ভাল থাকার ইচ্ছে গুলি , আজ আর ঈদের আনন্দ গুলি তেমন করে তৈরী হয় না, কবে আসবে বাবা বাড়ি , কবে আসবে বোন , কবে আসবে ভাই আজ আর নাই এসব কিছু ,

কোথায় হারিয়ে গেল বলতে পার ” মা” মাকে বললে বলবে খোকা তরা এখন অনেক বড় হয়ে গেলি যে, তদের যে অনেক নতুন মানুষ হয়েছে তাই, পরিবারের মানুষ গুলি দূরে থাকলে সব কিছু নিজের মত করে হয়ে যাবে, এখন খোকা অনেক টাকা কামায় করে , আগে খোকা অন্যের কাজ করত , আজ খোকার বড় কিছু হয়েছে , আজ খোকার পরিবারের লোক কষ্ট পেলে কি আসে যায় , আজ অনেক টাকা কামায় করে খোকা ,
তাইত খোকা মহা খুশিতে ভেসে ভেড়ায় ,
খোকার আজ আর পরিবারের মানুষ গুলিকে কষ্ট দিতে ভূলে না,

খোকার এখন কি হল , অনেক টাকা , অনেক পরিবর্তন,

অজানা একটি সাগর পেলাম , সাগরে মাঝে আছে ঢেউ , এক একটি ঢেউ যেন বুকের পাঝড় ডেংগে দেবার মত, হয়ত মহান আললাহ এসব কিছু সইবার শক্তি দিয়েছেন বলে সইতে পারবে পরিবারের সেই প্রিয় মানুষ গুলি।

বিশাল সাগরের মাঝে ছোট্ট নৌকাটি টলতে টলতে কিনারা পাবে হয়ত , কিন্তু ঐ সময় ঐ দিন , ঐ মূহুর্তের ঘটে যাওয়া সৃতি ভোলার মত সময় থাকবে কি

সূর্যের আলোয় আলোকিত পৃথিবী ,

এক ঝাক গল্পের পাতায় সাজানো মূহুর্ত,
রং তুলি দিয়ে আকা ,
মনের রং তুলিতে সাজানো একটি ঘর ,
কখন যে মেঘেদের আড়ালে স্বপ্ন গুলি ডেকে গেল টের পেলাম না

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ