মানসুরা আক্তার স্টাফ রিপোর্টার

গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার চন্দ্রায় ঢাকা-টাংগাইল মহাসড়কে নওজোর হাইওয়ে চন্দ্রা পুলিশ বক্স পরিদর্শন ও যাত্রীদের মাঝে হ্যান্ডবিল বিতরণ শেষে পুলিশ মহাপরিদর্শক চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন সাংবাদিকদের বলেন, গতবার মহাসড়কে শুধু ঘরে ফেরার যাত্রীরা ছিলেন-এবার যাত্রীদের সাথে যুক্ত হয়েছে কুরবানীর পশুবাহী যানবাহন এবং মৌসুমী ফলের গাড়ি। এতে করে ঈদ যাত্রা এবার বেশি চ্যালেঞ্জিং হবে। গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার চন্দ্রা মহাসড়ক পরিস্থিতি নিয়ে ব্রিফিংয়ে চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন যাত্রীদের পরামর্শ দেন যানবাহনে সতর্কতার সাথে যাতায়াতের।
এছাড়াও যাত্রায় আবহাওয়া খারাপ হলেও যাত্রীদের নির্বিঘ্নে যাতায়াতে নিরাপত্তায় মাঠে অধিক আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সদস্যরাও থাকবে।
এ সময় তিনি হুঁশিয়ার দিয়ে বলেন, সারাদেশে পশু বহনকারী যানবাহনে চাঁদাবাজির চেষ্টা করা হলে তাদের বিরুদ্ধে সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা নেয়া হবে-আইজিপি।
আব্দুল্লাহপুর থেকে রাজেন্দ্রপুর , উলুখোলা থেকে মিরের বাজার, ভোগড়া বাইপাস থেকে চন্দ্রা, এবং জিরানী বাজার পর্যন্ত । উন্নয়ন প্রকল্পগুলো ভবিষ্যতের জন্য সহায়ক হলেও বর্তমানে ট্রাফিক ব্যবস্থাপনার উপর ব্যাপক চাপ সৃষ্টি করছে। চলমান নির্মাণ কাজেরর জন্য স্টেশন কেন্দ্রিক রাস্তার প্রোশস্ততা হ্রাস,খানা-খন্দের সৃষ্টি, রোড ডিভাইডার না থাকা, বর্ষাকালে ড্রেনেজ সিস্টেম যথাযথভাবে কার্যকরী না হওয়ায় নীচু অংশে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়ে ট্রাফিক ব্যবস্থাপনায় ধীরগতি ও যানজট অসহনীয় পর্যায়ে নিয়ে যায়। তারপরও সড়ক যানজট মুক্ত করতে এবং শৃঙ্খলা আনে নিরলস প্রচেষ্ঠা চালিয়ে যাচ্ছে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ। ঈদ কেন্দ্রিক ঘরমুখো মানুষের যাত্রা নির্বিঘ্ন করতে এবং ট্রাফিক শৃঙ্খলা রক্ষার্থে গাজীপুর মহানগরের আওতাধীন মহাসড়ককে ৩ টি(তিন) সেক্টরে ভাগ করা হয়েছে এবং সার্বক্ষণিক জনবল মোতায়েনের ব্যবস্থা করা হয়েছে।
মহাসড়কের পাশে একাধিক কোরবানীর পশুর হাট থাকায় মহাসড়কের উপর বাড়তি চাপ প্রশমনের জন্য অতিরিক্তি নিরাপত্তা ব্যবস্থাও গ্রহণ করা হয়েছে। কোরবানীর পশুর হাটে নিরাপদে অর্থ পরিবহনের জন্য মানি এসকর্ট ডিউটির ব্যবস্থা করা হয়েছে। জাল টাকার বিস্তারে প্রতিটি হাটে জাল নোট সনাক্তকরণ যন্ত্র সরবরাহ করা হয়েছে।
এছাড়া ঈদ যাত্রার প্রাক্কালে, ঈদের ছুটিতে ও ঈদের পরবর্তী দিন গুলোতে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা তথা চুরি, ছিনতাই, ডাকাতি, অজ্ঞান ও মলম পার্টির তৎপরতা রোধকল্পে অপরাধ দমন বিভাগ ও গোয়েন্দা বিভাগও তৎপর রয়েছেন ।

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ