গাজীপুর সংবাদদাতা
গাজীপুর চৌরাস্তা তেলিপাড়া অবস্হিত আলফা ড্রেসওয়ার লিমিটেড ঈদের বোনাস না পেয়ে শ্রমিকদের দিন ব্যাপী চরম ক্ষোভ প্রতিবাদস্বরূপ গণহারে রিজাইন।ঈদের ছুটি শেষে প্রথম কর্মদিবসে নাম প্রকাশ না করার শর্তে উক্ত প্রতিষ্টানের একাধিক কর্মরত শ্রমিক জানিয়েছেন ইতোমধ্যেই প্রায় ঈদুল ফিতরের পর প্রায় দুইশতাধিক শ্রমিক কে জোড় করে বের করে দেওয়া হয়েছে।আজকে ঈদের ছুটির পর প্রথম কর্মদিবসেই প্রায় অর্ধ শতাধিক শ্রমিক রিজাইন দিয়েছেন।ঈদের আগে ০৭/০৭/২০২২ ইং তারিখে বিকাল-৫.০০ ঘটিকায় ঈদুল আযহার ছুটি ঘোষনা করেন কতৃপক্ষ। ছুটি দেওয়ার সময় শ্রমিকদের বলা হয়েছে ব্যাংকের সমস্যার কারনে বোনাস ডুকতে কিছুটা দেরি হবে তবে মোবাইলে সবাই বোনাস পেয়ে যাবেন। কিন্তু শ্রমিকদের সাথে প্রতারনা করেছে মালিক পক্ষ তাই ছুটি শেষে আজ প্রথম কর্মদিবসে প্রতিবাদ হিসাবে কাজে যোগ না দিয়ে কর্মবিরতি পালন করেন উক্ত প্রতিষ্টানের সকল শ্রমিকগণ।কর্মবিরতি চলাকালে শ্রমিকরা অভিযোগ করে বলেন গত ২০২১ইং সাল থেকে প্রায় দের বছর যাবত আমরা ঠিকঠাক মতো বেতন বোনাস পাচ্ছিনা এর আগে ভালই চলছিল কারখানাটি আমাদেরকে দিয়েছে সুযোগ-সুবিধা। অভিযোগ আছে কারখানাটির পরিচালনার দায়িত্বে থাকা বর্তমান কর্তৃপক্ষ স্বাধীনতা বিরোধী জামাত শিবিরে বিভিন্ন পর্যায়ের পদ পদবী নেতা রয়েছেন তার মধ্যে অন্যতম হলেন রহমতুল্লাহ (শিপন) ফ্যাক্টরি ম্যানেজার [বর্তমান] তিনি ছিলেন জামালপুর সরিষাবাড়ী ছাত্র শিবিরের সাবেক সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন তাঁর নামে রয়েছে একাধিক হত্যা এবং রাষ্ট্রবিরোধী নাশকতামূলক মামলা, ফ্যাক্টরির এডমিন জি,এম আরিফ রব্বানি এক সময়ের টঙ্গী কলেজ শাখার ছাত্র শিবিরের সভাপতি দায়িত্ব পালন করেছেন তাঁর নামে রয়েছে একাধিক হত্যা এবং রাষ্ট্রবিরোধী নাশকতামূলক মামলা। শ্রমিকরা অভিযোগ করে বলেন তাদের অনেককেই জোড় করে জংগী সংগঠনে যোগদানের আহবান জানানো হয়েছে যারা রাজি হননি তাদেরকে চাকরীচ্যুত করা হয়েছে। ঈদুল আযহার 5 দিন আগে চাকরীচ্যুত করা হয়েছে সুপারভাইজার মঞ্জুরুল ইসলাম তাকে বেতন বোনাস কিছুই দেওয়া হয়নি।সাবেক,সিও মনির হোসেন মার্কেটিং ম্যানাজার সোহানুর রহমান সোহান প্রডাকশন জি,এম শহিদুল ইসলাম। পি,এম শহিদুল হক টেকনিশিয়ান রফিকুল ইসলাম রফিক কে অন্যায় ভাবে জোড় করে বেড় করে দেওয়া হয়েছে। সাবেক এড,মিন ম্যানাজের বদরুল আলম বাড়ি খুলনা।সাবেক,ইষ্টোর ইনর্চাচ আ,মান্নান,বাড়ি রাজশাহী সাবেক এইচ আর ম্যানাজার জাহিদ হাসান বাড়ি সিরাজগঞ।সাবেক সুপারভাইজার বাবুল মোশারফ সহ প্রায় অর্ধশত শ্রমিকদের কে বিনা নোটিশে জোড় করে বেড় করে দেওয়া হয়।তাদের কে কোন বেতন বোনাস দেওয়া হয়নি।এর মধ্যে বেশ কয়েকজন মামলা করেছেন।মামলা গুলো বর্তমানে বিচারাধিন হয়েছে।জাহিদ ও আ,মান্নান আদালতে মামলা করেন। আজ সকাল থেকে শিল্প পলিশের দুইটি কাভার ভ্যান কারখানার সামনে অবস্থান করতে দেখা গেছে
উক্ত বিষয়ে কারখানা কতৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করতে চাইলে কারখানার সিকিউরিটি গার্ড বলেন সবাই হজ্ব পালন করতে সৌদি গেছেন।

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ