উজ্জ্বল কুমার সরকারঃ
আজ ২৬ মার্চ ড. গোবিন্দ চন্দ্র দেব (১ ফেব্রুয়ারি, ১৯০৭ – মার্চ ২৬, ১৯৭১) এর প্রয়াণ দিবস। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শনবিদ্যার একজন অধ্যাপক ছিলেন। বুদ্ধিজীবী-সম্প্রদায়কে ধ্বংস করার একটি পরিকল্পনার অংশ রূপে পাকিস্তানি সৈন্যরা ক্ষণজন্মা মনীষী, আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন উল্লেখযোগ্য দার্শনিক ড.গোবিন্দ চন্দ্র দেবকে ১৯৭১ সালের ২৬ শে মার্চের প্রথম প্রহরে হত্যা করেছিল। সংক্ষেপে জে.সি দেব। এই নামেই তাঁকে চেনেন বিশ্বের দর্শন শাস্ত্রের চিন্তাবিদরা। মানবকল্যাণে, সত্য সুন্দর ও ন্যয় প্রতিষ্ঠায় এবং অসাম্প্রদায়িক ও মানবতাবাদী দর্শন প্রচারের জন্য খ্যাত ছিলেন এই শিক্ষক। চিরকুমার গোবিন্দচন্দ্র দেব তাঁর সমস্ত সম্পত্তি ও অর্থ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে দান করেন । পেয়েছেন ‘স্বাধীনতা পুরস্কার’ (মরণোত্তর), ‘একুশে পদক’ (মরণোত্তর) স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জনের পর ‘কোলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় স্বর্ণপদক’। পূর্ব বঙ্গের সুশীল সমাজের তাঁকে ‘দর্শন সাগর’ উপাধিতে ভূষিত করে। ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ কালরাতে পাকিস্তানি সেনাবাহিনী তাদের কুখ্যাত অপারেশন সার্চলাইট শুরুতেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে হত্যাযজ্ঞ চালায়। জগন্নাথ হল আক্রান্ত হলে ছাত্রদের বাঁচাতে বেরিয়ে আসেন জে সি দেব। ভেবেছিলেন তাঁকে দেখে হয়তো পাকিস্তানী মিলিটারি থমকে যাবে, ছাত্ররা পালাতে পারবে। কিন্তু, পাক হানাদার বাহিনী নৃশংস ভাবে হত্যা করে তাঁকে। আরও অগনিত ছাত্রের সঙ্গে পুঁতে রাখে হল প্রাঙ্গনের মাটিতে। আজ প্রয়াণ দিবসে জানাই বিনম্র শ্রদ্ধাঞ্জলি এই মহান শিক্ষকের প্রতি।

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ