মোঃ কামাল হোসেন, বিশেষ প্রতিনিধি:
যশোরের অভয়নগর উপজেলার বাঘুটিয়া ইউনিয়নের ভাটপাড়ায় ফার্মের প্রায় ৪ শত বয়লার মুরগী বিষ প্রয়োগে হত্যা করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। জানা যায়, ভাটপাড়া গ্রামের মৃত গোলাম রহমানের মেজ ছেলে মোবারক হোসেনের ফার্মে এক থেকে দুই কেজি ওজনের ১ হাজার বয়লার মুরগী ছিল।ফার্মের কোল ঘেষে ভাটপাড়া গ্রামের মৃত কদম আলী সরদারের বড় ছেলে মাসুদ সরদার ২৪ শে মার্চ রবিবার বিকাল ৪ টার সময় ধানের জমিতে বিষ প্রয়োগ করে।এসময় তাকে বিষ প্রয়োগ করলে মুরগী মারা যাওয়ার কথা বললেও কোনো কর্ণপাত না করে বিষ প্রয়োগ করে চলে যায়। কিছুক্ষণ যেতে না যেতেই মুরগী মারা যেতে থাকে। প্রায় ৪ শত মুরগী মারা যায়। ফলে আনুমানিক লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এবিষয়ে ক্ষতিগ্রস্ত মোবারক হোসেন বলেন,মাসুদ সরদার ধানে খুবই ক্ষতিকর বিষ প্রয়োগ করেছে।পাশেই আমার মুরগীর ফার্ম।নিষেধ করা সত্বেও সে শোনেনি। আরো বলেছে আমি আমার ক্ষেতে বিষ দিয়েছি তোমার মুরগী মারা গেলে আমি কি করব। আমার প্রায় দেড় লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে। ইউপি সদস্য শেখ ওসমান আলী বলেন, মাসুদের ধানে বিষ প্রয়োগের ফলে দুর্গন্ধের কারণে মোবারকের প্রায় ৪ শত মুরগী মারা গেছে।তার প্রায় লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে। মাসুদের কাজটা করা ঠিক হয়নি। ভাটপাড়া তদন্ত কেন্দ্রের আইসি বলেন,মুরগী মারার খবর পেয়ে আমরা গিয়েছিলাম। এটা খুবই দুঃখজনক।অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এব্যপারে বেশ কয়েকবার চেষ্টা করেও মাসুদ সরদারের বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ