এম,ডি রেজওয়ান আলী, বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:-দেশের অগ্রযাত্রার সাথে তাল মিলিয়ে যুব সমাজ অনলাইন জুয়া খেলায় সময় দিয়ে সামনের সুন্দর জিবন ধ্বংসের পথে রয়েছে। অনলাইন জুয়া খেলা সারাদেশের সাথে তাল মিলিয়ে দিনাজপুর তথা বিরামপুর উপজেলায় যুব সমাজ ও ছাত্র ছাত্রীদের মাঝে ব্যাপক ভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। এর ফলে ছাত্র ছাত্রীরা ও যুব সমাজ ধ্বংসের দিকে ধাবিত হচ্ছে। এরই ধারা বাহিকতায় অনলাইন জুয়া বন্ধ করতে বেটিং সাইট ও অ্যাপগুলোর তালিকা করছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। সংস্থাটি সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) আগারগাঁওয়ে গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এসব তথ্য জানান।
দেশের কোন জেলায় কোন অ্যাপ বা সাইট ব্যবহৃত হচ্ছে তা জানাতে জেলা প্রশাসকদের চিঠি দেয়া হয়েছে বলে জানা যায়। ব্যান্ডউইথের দাম কমানো নিয়ে কাজ চলছে বলে জানিয়েছে বিটিআরসি। ব্যান্ডউইথের দাম কমানো নিয়ে কাজ চলছে বলে জানিয়েছে বিটিআরসি। টি-টোয়েন্টির যুগে বিপিএল কিংবা আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে মাঠে হরহামেশা চলে চার-ছক্কার ফুলঝুরি। কখনও ইয়র্কার কিংবা দুর্দান্ত সুইংয়ে ব্যাটারকে পরাস্ত করে নৈপুণ্য দেখান বোলাররাও। তবে মাঠের উন্মাদনা ছাপিয়ে অনলাইনে প্রতিটি বলের হিসাব-নিকাশ করে চলে রমরমা জুয়া। শহর থেকে প্রত্যন্ত অঞ্চলেও ছড়িয়ে গেছে এর দৌরাত্ম্য। বাজি ধরতে গিয়ে নিঃস্ব হচ্ছে তরুণ থেকে বৃদ্ধের দল। এ পরিস্থিতিতে অনলাইন জুয়ার দৌরাত্ম্য বন্ধে জোরেশোরে মাঠে নামার কথা জানায় বিটিআরসি। নিয়ন্ত্রক সংস্থা বলছে,সারা দেশে দেদারছে চলছে এমন অনলাইন বেটিং সাইট ও অ্যাপের তালিকা প্রস্তুত করা হচ্ছে। এ ক্ষেত্রে সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে মাঠ প্রশাসনের। বিটিআরসির মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো.খলিলুর রহমান বলেন,শুধু বেটিং সাইট নয়;পর্ণ সাইট এমনকি ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সরকারবিরোধী উসকানি ও মিথ্যা তথ্যের প্রচারণা ঠেকাতেও সার্বক্ষণিক নজরদারি করছে বিটিআরসি। সভায় মোবাইল ইন্টারনেটের মূল্য নিয়ে জানতে চাওয়া হলে,ব্যান্ডউইথের দাম কমানো নিয়ে কাজ চলছে বলে জানায় নিয়ন্ত্রক সংস্থা। অনলাইন জুয়া খেলা এমন একটি খেলা যেটি দেশের প্রতিটি শহর হাট বাজার স্কুল কলেজ মাদ্রাসায় পড়ুয়া ছাত্র ছাত্রীরা বেশি ঝুঁকে পড়েছে। তাদের সামনের মুল্যবান সময় কে উপেক্ষা করে লেখাপড়ায় ফাঁকি দিয়ে মোবাইলে অনলাইন জুয়া খেলায় সব সময় ব্যস্ত হয়ে পড়েছে। এবিষয়ে স্হানীয় ছাত্র ছাত্রীর অবিভাবক গন জানিয়েছেন,ছেলেমেয়ে এই সুন্দর জীবন গড়তে যতদুর সম্ভব অতি তাড়াতাড়ি করে সেই অনলাইন জুয়া খেলা বন্ধে সংশ্লিষ্টদের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন। আর তা না হলে স্কুল কলেজ পড়ুয়া ছাত্র ছাত্রীর সামনের সুন্দর জিবন ধ্বংস হয়ে যাবে।

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ